;

কিশোরগঞ্জ

এশিয়া মহাদেশের সর্ববৃহৎ ঈদগাহ শোলাকিয়া ঈদগাহ

কিশোরগঞ্জের ইতিহাস

ইতিহাস জাতির দর্পন বা আয়নাস্বরূপ। ইতিহাসের মাধ্যমেই জাতি তার প্রকৃত রূপ ও প্রকৃতি দেখতে পায়। ইতিহাসের আলোকেই মানুষ তার বর্তমান ও ভবিষ্যত চলার পথ অনুসন্ধান করে। কিশোরগঞ্জ জেলার ইতিহাস সুদীর্ঘ এবং তার ঐতিহ্য ব্যাপকভাবে প্রসারিত। প্রশাসনিক পরিসরে কিশোরগঞ্জ জেলা দেশের অন্যতম বৃহত্তম জেলা হিসেবে পরিচিত,সর্বজনস্বীকৃত । গ্রাম বাংলার শাশ্বত রূপ বৈচিত্র ও সোনালী ঐতিহ্যের ধারায় কিশোরগঞ্জের রয়েছে একটি সমৃদ্ধ ইতিহাস…

বিস্তারিত

ঐতিহাসিক পাগলা মসজিদ, কিশোরগঞ্জ

ঐতিহাসিক পাগলা মসজিদ,  কিশোরগঞ্জ

বাংলা দাপিয়ে বেরানো বার ভুঁইয়ার নাম শুনে নি এমন লোক খুঁজে পাওয়া মুশকিল। বার ভূঁইয়ার অন্যতম ঈশা খাঁর কথা আসলে সাথে সাথেই যে নামটি প্রথমে মনে আসে তা মুসলিম ঐতিহ্য সমৃদ্ধ এক জনপদের নাম কিশোরগঞ্জ। প্রাচীন ও আধুনিক স্থাপত্য সমৃদ্ধ

ঈশা খাঁর স্মৃতি বিজড়িত জঙ্গলবাড়ি, কিশোরগঞ্জ

ঈশা খাঁর স্মৃতি বিজড়িত জঙ্গলবাড়ি, কিশোরগঞ্জ

ঈশা খাঁর কথা জানে না বা নামটি অন্তত একবার শোনেনি এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া খুবই কঠিন। কেননা বিভিন্ন পাঠ্য পুস্তকেও ঈশা খাঁর বীরত্ব ও ইতিহাসের কথা বহুবার উঠে এসেছে। বীর ঈশা খাঁ এই দেশের এক প্রতাপশালী জমিদার ছিলেন। তাঁর মূল

গাঙ্গাটিয়া জমিদার বাড়ি, কিশোরগঞ্জ

গাঙ্গাটিয়া জমিদার বাড়ি, কিশোরগঞ্জ

আমাদের দেশের বিভিন্ন ঐতিহাসিক স্থাপনা আমাদের অতীত ইতিহাস ও ঐতিহ্যকে ধারণ করে এখনো স্ব-মহিমায় নিজের অস্তিত্ব জানান দেয়। প্রতিটি জেলার এসব ঐতিহাসিক স্থাপনা যেমন আমাদের দেশের সৌন্দর্যের অন্যতম অনুষঙ্গ তেমনি পর্যটকদেরও আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু। ঐতিহ্যবাহী কিশোরগঞ্জ জেলায় রয়েছে বেশ কিছু ঐতিহাসিক

জঙ্গলবাড়ি দুর্গ, কিশোরগঞ্জ

জঙ্গলবাড়ি দুর্গ, কিশোরগঞ্জ

আমাদের দেশের বিভিন্ন ঐতিহাসিক স্থাপনা আমাদের অতীত ইতিহাস ও ঐতিহ্যকে ধারণ করে এখনো স্ব-মহিমায় নিজের অস্তিত্ব জানান দেয়। প্রতিটি জেলার এসব ঐতিহাসিক স্থাপনা যেমন আমাদের দেশের সৌন্দর্যের অন্যতম অনুষঙ্গ তেমনি পর্যটকদেরও আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু। প্রাচীন সভ্যতার নিদর্শন ঈশা খাঁর জঙ্গলবাড়িটি এখনো

দিল্লীর আখড়া, কিশোরগঞ্জ

দিল্লীর আখড়া, কিশোরগঞ্জ

নাম দিল্লীর আখড়া হলেও আখড়াটি মোটেও দিল্লিতে নয়। এটি কিশোরগঞ্জের মিঠামইন উপজেলার শেষ প্রান্তে অবস্থিত। দিল্লীর সম্রাট জাহাঙ্গীরের বদান্যতায় এটি প্রতিষ্ঠিত হয়েছিলো বিধায় এর এমন নামকরণ বলে জানা যায়। চারদিকে হাওড় বেষ্টিত এই স্থানটি অত্যন্ত প্রাচীন। প্রায় ৪০০ বছর আগের

মিঠামইন হাওর, কিশোরগঞ্জ

মিঠামইন হাওর, কিশোরগঞ্জ

কিশোরগঞ্জ জেলা হাওর এলাকার জন্য বিখ্যাত। এর অর্থনীতির মূল চালিকাশক্তি এই হাওর থেকেই আসে। শুধু অর্থনৈতিক দৃষ্টিকোণ থেকেই নয় এই হাওর এলাকা প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের জন্যও অনেক জনপ্রিয়। হাওর-বাওর , নদী , সমতলভূমি ও ভাটির বৈচিত্র্যময় ভূ-প্রকৃতির একটি বিস্তীর্ণ জেলা কিশোরগঞ্জের

সারা উপমহাদেশে বিখ্যাত শোলাকিয়া ঈদগাহ ময়দান

সারা উপমহাদেশে বিখ্যাত শোলাকিয়া ঈদগাহ ময়দান

উপমহাদেশের সর্ববৃহৎ ঈদুল ফিতরের জামাত অনুষ্ঠিত হয় কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়া ঈদগাহ ময়দানে। ১৭৫০ সাল থেকে শোলাকিয়া মাঠে ঈদের জামাত হয়ে আসছে। সে হিসাব অনুসারে, শোলাকিয়া ঈদগাহের বয়স ২শ’ ৬৬ বছর। প্রতিষ্ঠার ৭৮ বছর পর ১৮২৮ সালে প্রথম বড় জামাতে এই মাঠে

অষ্টগ্রাম হাওর, কিশোরগঞ্জ: বৈচিত্রময় ভূ-প্রকৃতির কিশোরগঞ্জে ঘুরে আসুন এই বর্ষায়

অষ্টগ্রাম হাওর, কিশোরগঞ্জ: বৈচিত্রময় ভূ-প্রকৃতির কিশোরগঞ্জে ঘুরে আসুন এই বর্ষায়

হাওর, নদী আর মিঠাপানির জলাভূমির বৈচিত্র্যময় ভূপ্রকৃতির জন্য বিখ্যাত কিশোরগঞ্জ। বর্ষায় ঘুরার জন্য উপযুক্ত একটি জেলা। চারদিকে শুধু থৈ থৈ পানির রাজ্য আর সবুজ শ্যামলিমা। বর্ষার রূপ বৈচিত্র্য আর সুবিমল প্রকৃতি খুব কাছ থেকে দেখতে যাওয়া চাই কিশোরগঞ্জে। আর কিশোরগঞ্জের

নিকলী হাওড়,কিশোরগঞ্জ: মায়াবী বর্ষার সৌন্দর্যের কাছাকাছি

নিকলী হাওড়,কিশোরগঞ্জ: মায়াবী বর্ষার সৌন্দর্যের কাছাকাছি

রাজধানী ঢাকার তীব্র যানজট আর অসহনীয় গরমের কথা তো নতুন কিছু নয়। সপ্তাহান্তে যখন ছুটি মেলে চাইলেই প্রকৃতির কাছাকাছি কোথাও গিয়ে দু দণ্ড জিরিয়ে নেয়ার জায়গা পাওয়া দায়। সামনেই আসছে বর্ষাকাল। এই বর্ষায় রাজধানীর বুকে পড়ে থেকে বিরক্ত নাহতে চাইলে