;

লক্ষ্মীপুর

ছিল লবণ ও বস্ত্র শিল্পে সমৃদ্ধ

লক্ষ্মীপুরের ইতিহাস

যে ভূখন্ড নিয়ে বর্তমান লক্ষ্মীপুর জেলা অবস্থিত তার আদি চিত্র এ রকম ছিল না। অধিকাংশ স্থানে বঙ্গোপসাগরের উত্তাল তরঙ্গমালা ক্রীড়ায় মত্ত থাকত। বিখ্যাত চীনা পরিব্রাজক হিউয়েন সাঙ তাঁর ‘সিউতী’ নামক ভ্রমণ বৃত্তান্তে ‘কমলাঙ্ক’কে সমুদ্র তীরবর্তী বলে বর্ণনা করেছেন। ‘কমলাঙ্ক’ বর্তমানে কুমিল্লা ও পূর্ববর্তী ত্রিপুরা জেলার প্রাচীন নাম। কবি কালিদাস তাঁর ‘রঘু বংশ’ কাব্যে ‘সুষ্মি দেশকে’ ‘তালিবন শ্যামকণ্ঠ’ বলে অভিহিত করেছেন।…

বিস্তারিত

দালালবাজার জমিদার বাড়ি, লক্ষ্মীপুর

দালালবাজার জমিদার বাড়ি, লক্ষ্মীপুর

কালের সাক্ষীর নিদর্শন অসংখ্য রাজবাড়ী আমাদের দেশের ঐতিহ্য ও সৌন্দর্যের এক অনন্য প্রতীক। অতীতের স্মৃতি বিজড়িত এসব রাজবাড়ীর সৌন্দর্য মুগ্ধ করে সকল ভ্রমণ প্রেমীদের। আর তাই প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন প্রাচীন এই জমিদারবাড়িগুলো ভ্রমনপ্রেমীদের প্রিয় গন্তব্য। তেমনি কালের নীরব সাক্ষী হয়ে দাঁড়িয়ে

চর আলেকজান্ডার, লক্ষ্মীপুর

চর আলেকজান্ডার, লক্ষ্মীপুর

  লক্ষ্মীপুরের চর আলেকজান্ডার। মেঘনার মোহনায় গড়ে ওঠা একটি জনপদ। এই জায়গাটি ইদানীংকালে অত্র অঞ্চলের মানুষের কাছে খুব আকর্ষণীয় একটি জায়গায় পরিণত হয়েছে। তার কারণ এখানে আসলে মেঘনার অন্য এক রূপ ধরা পড়ে। এই অঞ্চলে মানুষের বিনোদন মাধ্যমও কম হওয়ায়

সয়া-ইলিশের লক্ষ্মীপুর

সয়া-ইলিশের লক্ষ্মীপুর

লক্ষ্মীপুর বাংলাদেশের একটি উপকূলীয় জনপদ। চরাঞ্চল ও প্রত্যন্ত গ্রাম এ অঞ্চল কে সম্মৃদ্ধ করেছে। মেঘনা ও বঙ্গোপসাগরের কুল ঘেঁষে গড়ে ওঠা এ জনপদ খুব প্রাচীনকাল থেকেই ইলিশ, নারিকেল, সুপারির জন্য সারাদেশে বিখ্যাত। তবে বিগত প্রায় সাড়ে ৩ দশক ধরে অর্থকরি

তিতা খাঁ মসজিদ, লক্ষ্মীপুর

তিতা খাঁ মসজিদ, লক্ষ্মীপুর

মসজিদটি অত্যন্ত প্রাচীন। প্রায় তিনশত বছর পূর্বে হযরত আজিম শাহ (রঃ) বাগানের মধ্যে মসজিদটি আবিষ্কার করেন।প্রায় ৩ শত বছর পূর্বে প্রতিষ্ঠিত লক্ষ্মীপুর শহরের উপর তিতা খাঁ মসজিদটি শৈল্পিক কারুকার্য এবং দৃষ্টি নন্দনতার জন্য সকল সময়ে খ্যাতি লাভ করেছে। ঐ সময়

জ্বীনের মসজিদ, লক্ষ্মীপুর

জ্বীনের মসজিদ, লক্ষ্মীপুর

দিল্লীর শাহী জামে মসজিদের নকশায় নির্মিত এই মসজিদটি ১১০ ফুট দৈর্ঘ্য ও ৭০ ফুট প্রস্থ বিশিষ্ট এবং মাটি থেকে ১০ ফুট উঁচুতে অবস্থিত।এর ভিটির উচ্চতা ১৫ ফুট য ১৩ ধাপ সিঁড়িযুক্ত। এর দেয়ালের প্রস্থ ৮ ফুট। মসজিদের সম্মুখের মিনারটি ২৫

অপরূপ খোয়া সাগর দীঘি, লক্ষ্মীপুর

অপরূপ খোয়া সাগর দীঘি, লক্ষ্মীপুর

শহরের তীব্র যানজট আর নানা রকম ব্যাস্ততায় আমরা রীতিমত হাঁপিয়ে যাই সবসময়ই,তাই সুযোগ বা ছোট কোন ছুটি পেলেই দৌঁড়ে পালাই প্রকৃতির নিকটে একটু প্রশান্তির জন্য। আর একবুক নিশ্বাস আর প্রশান্তির হু হু বাতাস নেওয়ার জন্য এরকম বহু মানুষ ছুটে আসে