;

লালমনিরহাট

উত্তরে ধরলা নদী ও দক্ষিনে তিস্তা নদী

লালমনিরহাটের ইতিহাস

১৯৮৪ খ্রিষ্টাব্দের ১লা ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ সরকারের তৎকালীন সমাজ কল্যাণ ও মহিলা বিষয়ক উপদেষ্টা (মন্ত্রী) ডঃ শাফিয়া খাতুন কর্তৃক উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে লালমনিরহাট মহকুমা ‘জেলা’ হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে। পরে ১৯৮৪ খ্রিষ্টাব্দের ১৮ মার্চ লালমনিরহাট সদর থানা ‘উপজেলা’ হিসেবে ঘোষিত হয়। ফলে লালমনিরহাট জেলার অধীনে উপজেলার সংখ্যা দাড়ায় - ৫টি; পাটগ্রাম, হাতীবান্ধা, কালীগঞ্জ, আদিতমারী এবং লালমনিরহাট সদর। এসময় লালমনিরহাট সদর থানার ছিনাই,…

বিস্তারিত

হারানো মসজিদ, লালমনিরহাট

হারানো মসজিদ, লালমনিরহাট

ব্রহ্মপুত্র-তিস্তা অববাহিকাকে বলা হয় পৃথিবীর প্রাচীনতম অববাহিকাগুলোর একটি। এই অববাহিকার নিকটস্থ একটা গ্রাম লালমনিরহাট জেলার পঞ্চগ্রাম ইউনিয়নের রামদাস গ্রাম। দিগন্ত জোড়া ফসলের মাঠ আর মাঝেমধ্যে বেড়ে ওঠা জনবসতির চিহ্ন, তাও খুব কমই বলা চলে। এখানেই আবিষ্কৃত হয় হিজরি ৬৯ সন

তুষভান্ডার জমিদার বাড়ী, লালমনিরহাট

তুষভান্ডার জমিদার বাড়ী, লালমনিরহাট

তুষভান্ডার জমিদার বাড়ী কালীগঞ্জ উপজেলার তুষভান্ডার ইউনিয়নের উত্তর ঘনেশ্যাম মৌজায় অবস্থিত। ইতিহাস বিশ্লেষণে জানা যায়, মহারাজা প্রাণ নারায়ণের সময় “রসিক রায় বিগ্রহ’ (কৃষ্ণবিগ্রহ) নিয়ে ১৬৩৪ খ্রিষ্টাব্দে তুষভান্ডার জমিদার বংশের আদিপুরুষ মুরারি দেব ঘোষাল ভট্রাচার্য ২৪ পরগনা/কলিকাতার জয় নগর থেকে কোচবিহারে

নিদাড়ীয়া মসজিদ, লালমনিরহাট

নিদাড়ীয়া মসজিদ, লালমনিরহাট

মোগল সুবেদার মনছুর খাঁ ১১৭৬ হিজরীতে মসজিদটির জন্য ১০.৫৬ একর জমি দান করেন এবং মসজিদটি নির্মান করেন। ঐ সময়ের মোতয়াল্লি ছিলেন ইজার মাহমুদ শেখ, বিজার মাহমুদ শেখ, খান মাহমুদ শেখ প্রমূখ। সুবেদার মনছুর খাঁর দাড়ী না থাকায় তার নির্মিত্ত মসজিদটি

ঘুরে আসুন কাকিনা জমিদার বাড়ি

ঘুরে আসুন কাকিনা জমিদার বাড়ি

লালমনিরহাট জেলা সদর হতে ৩০ কিমি দুরত্বে কালীগঞ্জ উপজেলাধীন কাকিনা ইউনিয়নের কাকিনা মৌজায় এ জমিদার বাড়িটি অবস্থিত। সংক্ষিপ্ত ইতিহাস মহারাজা মোদ নারায়নের সময় কাকিনা ছিল কোচবিহার রাজ্যাধীন একটি চাকলা। তৎকালে কাকিনার চাকলাদার ছিলেন ইন্দ্র নারায়ণ চক্রবর্তী। ১৬৮৭ খ্রিষ্টাব্দে ঘোড়াঘাটের ফৌজদার

কাকিনা জমিদারবাড়ির ইতিহাস

কাকিনা জমিদারবাড়ির ইতিহাস

বৃহত্তর রংপুর জেলার অন্যতম জমিদারী ছিল কাকিনার জমিদার। ১৬৮৭ খ্রিস্টাব্দে মোগলদের দেয়া সনদমূলে কাকিনার জমিদারির সূচনা হয়। সে সময় ঘোড়াঘাটের মোগল ফৌজদার এবাদত খাঁ কোচ রাজা মহিন্দ্র নারায়নের সঙ্গে এক যুদ্ধে কোচ রাজ্যের ৬টি পরগনার মধ্যে কাকিনা, ফতেপুর ও কাজিরহাট

তুষভান্ডার জমিদার বাড়ির সংক্ষিপ্ত ইতিহাস

তুষভান্ডার জমিদার বাড়ির সংক্ষিপ্ত ইতিহাস

দেশের উত্তর জনপদের সীমান্তবর্তী জেলা লালমনিরহাট।  এ জেলায় রয়েছে কিছু ঐতিহাসিক নিদর্শন।  এসব নিদর্শনের মধ্যে একটি হলো লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার তুষভান্ডারে জমিদার বাড়ীটি আজও  কালের সাক্ষী হয়ে নীরবে দাঁড়িয়ে রয়েছে।  জানা যায়, তুষভান্ডার জমিদার বংশের গোড়াপত্তন ঘটে ১৬৩৪ সালে।  এই

ঐতিহ্যবাহী জামাই-বউ ও পিঠা মেলা

ঐতিহ্যবাহী জামাই-বউ ও পিঠা মেলা

লালমনিরহাটের সদর উপজেলায় বড়বাড়ি হাবিবা খাতুন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আয়োজন করা হয় তিন দিনব্যাপী মৎস্য, জামাই-বউ ও পিঠা মেলা। মেলায় স্থান পায় বিভিন্ন জাতের বিশাল আকৃতির মাছ। বিকেলে নানান জাতের পিঠা নিয়ে বসে পিঠা মেলাও। প্রতিদিন সকাল ৮টা থেকে