;

ঝিনাইদহ

খেজুর গুড়, কলা-পানের প্রাচুর্য মন্ডিত এই ঝিনাইদহ

ঝিনাইদহ‌ের ইতিহাস

বাংলাদেশের অন্যতম জনবহুল এবং দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের প্রবেশদ্বার ও জেলা সমূহের অন্যতম এই ঝিনাইদহ। ঝিনাইদহ এক সমৃদ্ধ জনপদ। মরমী কবি লালন শাহ্, পাগলা কানাই, বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান, বীরপ্রতীক সিরাজুল ইসলাম, বিপ্লবী বীর বাঘাযতীন, গণিত শাস্ত্রবিদ কে.পি.বসু, কবি গোলাম মোস্তফা, বারো আউলিয়ার আর্শীবাদপুষ্ট বারোবাজার, গাজী-কালূ-চম্পাবতির উপাখ্যান, কুমার-কপোতাক্ষ, চিত্রা, বেগবতী, নবগঙ্গাঁ নদী আর খেজুর গুড়, কলা-পানের প্রাচুর্য মন্ডিত এই ঝিনাইদহের রয়েছে সুপ্রাচীন ঐতিহ্য। ঝিনাইদহ…

বিস্তারিত

এতিহ্যবাহী গোরার মসজিদ, ঝিনাইদহ

এতিহ্যবাহী গোরার মসজিদ, ঝিনাইদহ

প্রত্নতাত্ত্বিক স্থাপনার প্রতি এদেশের মানুষের মনোভাব ক্ষীণ এবং অবহেলিত  হলেও এদেশের নানা জায়গায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে নানা ঐতিহাসিক এবং প্রত্নতাত্ত্বিক স্থাপনা। এইসব স্থাপনা দেখভালের যথোপযুক্ত ব্যবস্থা না থাকলেও ইতিহাস বুকে নিয়ে এইসবের কিছু কিছু আজো মোটামুটি দণ্ডায়মান। তেমনি একটি ঝিনাইদহ

শৈলকুপা শাহী মসজিদ, ঝিনাইদহ

শৈলকুপা শাহী মসজিদ, ঝিনাইদহ

প্রাচীন বাংলার ইতিহাস ঐতিহ্য স্থাপনা সব কিছুতেই তৎকালীন বিভিন্ন রাজরাজড়াদের নাম মিশে আছে। তাদের হাত ধরেই বিস্তৃত লাভ করে অনেক ঐতিহাসিক স্থাপনা। তেমনি একটি স্থাপনা দক্ষিণ বঙ্গের ঝিনাইদহ জেলার জেলার ঐতিহ্যবাহী শৈলকুপা শাহী মসজিদ। সুলতানি আমলের এই প্রাচীন স্থাপত্যটি ঝিনাইদহ

ঝিনাইদহের বারোবাজার বা প্রাচীন শহর মোহাম্মদাবাদ

ঝিনাইদহের বারোবাজার বা প্রাচীন শহর মোহাম্মদাবাদ

সভ্যতার ক্রমবিকাশের নানা স্মৃতিচিহ্ন লুকিয়ে আছে এই দেশে। তার সব হয়তো এখনো উদ্ধার সম্ভব হয় নি। যতটুকু তা দ্বারা বুঝা যায় যে একদা এই অঞ্চল ঘিরে গড়ে উঠেছে উন্নত ও আধুনিক নগর সভ্যতা। তেমনি একটি ধ্বংস প্রাপ্ত প্রাচীন নগরীর সন্ধান

এশিয়ার সর্ববৃহৎ বটগাছ ঝিনাইদহে!

এশিয়ার সর্ববৃহৎ বটগাছ ঝিনাইদহে!

ছায়াবৃক্ষ হিসেবে পরিচিত বটগাছ জড়িয়ে আছে এদেশের নানা ইতিহাস ঐতিহ্যে। আগেরকাল হতেই বিশালাকার বটগাছ কে কেন্দ্র করে গড়ে উঠতো হাট বাজার, মেলা কিংবা আঞ্চলিক নানা উৎসব পার্বণ। মজার বিষয় হচ্ছে দীর্ঘদেহী এবং দীর্ঘজীবী এই গাছের জন্মস্থান এই বঙ্গভূমিই। আরেকটা মজার

মিয়ার দালান – ‘জলমাঝে কমল সমান’

মিয়ার দালান – ‘জলমাঝে কমল সমান’

যুগ যুগ ধরে একসময় এই দেশে জমিদার প্রথা প্রচলিত ছিলো। সেই সময় কাল প্রবাহে অনেক দূর হারিয়ে গেলেও রয়ে যায় তাদের স্মৃতিচিহ্ন। তখন জমিদাররা তৈরি করে গেছেন দৃষ্টিনন্দন আর বিলাসবহুল সব রাজ প্রাসাদ আর স্থাপনা। এইসব স্থাপনাসমূহের যেমন রয়েছে ঐতিহাসিক

মিয়ার দালান, ঝিনাইদহ

মিয়ার দালান, ঝিনাইদহ

মিয়ার দালান বাংলাদেশের ঝিনাইদহ জেলার সদর থানার মুরারীদহে অবস্থিত একটি পুরানো জমিদার বাড়ি। এটি ঝিনাইদহের একটি দর্শণীয় স্থান।বাড়ীটি স্থানীয় নবগঙ্গা নদীর উত্তর দিকে অবস্থিত। ঝিনাইদহ শহরের প্রাণকেন্দ্র থেকে প্রায় তিন কিলোমিটার দূরে এটি অবস্থিত। বর্তমানে বাড়িটি ভগ্নপ্রায়।প্রাচীন ঐতিহ্য অনুযায়ী ইমারতের

ঐতিহাসিক বারোবাজার, ঝিনাইদহ

ঐতিহাসিক বারোবাজার, ঝিনাইদহ

ঝিনাইদহ শহর থেকে ২৬ কিলোমিটার দূরে ঐতিহাসিক বারোবাজারের অবস্থান। বারো আউলিয়া, খানজাহান আলী, গাজী কালু চম্পাবতী, গঙ্গারিডিসহ ইতিহাসের সব নিগুঢ় রহস্য ছড়িয়ে-ছিটিয়ে আছে এখানে। হোসেন উদ্দীন হোসেনের লেখা ‘যশোরাদ্য দেশ’ গ্রন্থ থেকে জানা যায়, বারোটি বাজার নিয়ে প্রসিদ্ধ ছিল ৭শ

শৈলকুপার অতুলনীয় রসমালাই

শৈলকুপার অতুলনীয় রসমালাই

ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার রসমালাই এখনো স্বাদে, মানে অতুলনীয়, অতীত ঐতিহ্য ধরে রেখেছে। সর্বত্র রয়েছে ব্যাপক চাহিদা। উল্লেখ্য বৃটিশ আমলে শৈলকুপায় কালীপদ সাহা নামের একব্যক্তি মিষ্টির দোকান খোলেন। তিনি দোকানে রসমালাই, চমচম, লালমোহন, রাজভোগ, সন্দেশ প্রভৃতি মিষ্টি তৈরি ও বিক্রি করতেন।