;

রাজবাড়ী

লক্ষীকোলের রাজার বাড়ী থেকে রাজবাড়ী

রাজবাড়ীর ইতিহাস

রাজবাড়ী যে কোন রাজার বাড়ীর নামানুসারে নামকরণ করা হয়েছে এ বিষয়ে কোন সন্দেহ নাই। তবে কখন থেকে ও কোন রাজার নামানুসারে রাজবাড়ী নামটি এসেছে তার সুনির্দিষ্ট ঐতিহাসিক কোন তথ্য পাওয়া যায়নি। বাংলার রেল ভ্রমণ পুসত্মকের (এল.এন.মিশ্র প্রকাশিত ইস্ট বেঙ্গল রেলওয়ে ক্যালকাটা ১৯৩৫) একশ নয় পৃষ্ঠায় রাজবাড়ী সম্বন্ধে যে তথ্য পাওয়া যায় তাতে দেখা যায় ১৬৬৬ খ্রিস্টাব্দে নবাব শায়েসত্মাখান ঢাকায় সুবাদার…

বিস্তারিত

রাজবাড়ীর সেরা চমচম

রাজবাড়ীর সেরা চমচম

প্রথমে একটু শ্লোক বলা যায়- “সাধলে জামাই খায় না পরে জামাই পায় না”। সেটা যে আর কিছুই নই তাহলো আমাদের রাজবাড়ীর সেরা চমচম। এটা যে কি সুস্বাদু তা যে খাবে একমাত্র সেই এই মজা পাবে এবং এতই মজা পাবে যে,

রাজবাড়ী উচ্চ বিদ্যালয়ের লাল ভবন

রাজবাড়ী উচ্চ বিদ্যালয়ের লাল ভবন

রাজবাড়ী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের দেড় শতাধিক বছরের প্রাচীন লাল ভবনটি রাজবাড়ী জেলার একটি অন্যতম পূরাকীর্তি।  রাজবাড়ীর বাণীবহের জমিদার গিরিজা শংকর মজুমদার দেড় শতাধিক বছরের পুরানো এই ভবনকে তার কাঁচারী ঘর হিসেবে ব্যবহার করতেন।  তিনি ১৮৯২ সালে এই ভবনে গোয়ালন্দ মডেল

মীর মশাররফ হোসেন স্মৃতি কেন্দ্র, রাজবাড়ী

মীর মশাররফ হোসেন স্মৃতি কেন্দ্র, রাজবাড়ী

উনবিংশ শতাব্দীর সর্বশ্রেষ্ট মুসলিম সাহিত্যিক রুপে খ্যাত ‘বিষাদ সিন্ধুর’ অমর লেখক মীর মশাররফ হোসেন ১৮৪৭ সালের ১৩ই নভেম্বর কুষ্টিয়া শহর থেকে তিন মাইল পূর্বে গড়াই ব্রীজের নিকটস্থ লাহিনীপাড়া গ্রামে ভূ-সম্পত্তির অধিকারী এক ধনাঢ্য পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতার নাম ছিল